১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রচ্ছদ আন্তর্জাতিক শক্তিশালী টাইফুনে লন্ডভ- জাপান, নিহত ২১
১৪, অক্টোবর, ২০১৯, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ -

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুন হাগিবিসের আঘাতে জাপানের রাজধানী টোকিও ও পাশ্ববর্তী উত্তরপূর্ব অঞ্চল লন্ডভ- হয়েছে। কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুন হাগিবিসের আঘাতে জাপানের রাজধানী টোকিও ও পাশ্ববর্তী উত্তরপূর্ব অঞ্চল লন্ডভ- হয়েছে। হাগিবিসের প্রভাবে ইতোমধ্যে জাপানের ৮ শতাধিক ফ্লাইট, দ্রুতগামী বুলেটট্রেনসহ যাবতীয় যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে। প্রায় ত্রিশ লাখ মানুষ শনিবার থেকে বিদ্যুৎবিহীন রয়েছে। প্রায় ষাট লাখ মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে গিয়েছেন। পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা এ পর্যন্ত ২১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করলেও এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। উদ্ধার তৎপরতা চলছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা গতকাল রোববার সকালে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমরা আপাতত জরুরি বৃষ্টিপাতের সর্তকর্তা লেবেল-৫ প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। তবে টোকিও, গুন্মা, সায়তামা, কানাগাওয়া, ইয়ামানাশি, নাগানো, শিজুওয়াকা, নিগাতা ও ফুকুশিমা অঞ্চলের বন্যা সর্তকতা জারি করা হয়েছে। ভূমিধস ও বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে সাংবাদিকদের বলেন, “এটা একটি ভয়াভয় প্রাকৃতিক দূর্যোগ। ইতোমধ্যে কয়েক হাজার এসডিএফ (সৈন্য) উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে দিয়েছে। আমরা জনগণকে জন্য সব ধরনের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি।” টাইফুনের ব্যাপকতা কমে এলেও আমরা এখন বন্যার কবলে পড়েছি। সবাইকে সর্তকভাবে চলার অনুরোধ করছি।” স্থানীয় কোস্টগার্ড কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত শনিবার রাতে টোকিও সাগরে ১২ জন ক্রুসহ পানামানিয়ান নামের একটি কার্গো ডুবে যায়। রোববার সকালে তিনজনকে জীবিত উদ্ধার করা গেলেও আরও ৯ জন নিখোঁজ রয়েছেন। টেলিভিশন ফুটেজে নাগানো প্রদেশে চিকুমা নদীর আশে-পাশে বাড়িঘর জলমগ্ন দেখা গেছে। বেশ কয়েকটি নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে বয়ে চলছে। শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার কিছুক্ষণ আগে টাইফুন হাগিবিস টোকিওর দক্ষিণপশ্চিমে ইজু উপদ্বীপের উপকূল দিয়ে স্থলে উঠে আসে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঘণ্টায় একটানা সর্বোচ্চ ২২৫ কিলোমিটার বাতাসের বেগ নিয়ে হাগিবিস হনশুর পূর্ব উপকূল ধরে উত্তর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। রোববার ভোরের আগে টাইফুনটি জাপানের উত্তরপূর্ব উপকূলের দিকে সরে যায় বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। রোববার সন্ধ্যায় টাইফুন হাগিবিস ফের সাগরমুখি হয়ে জাপানের উত্তরাঞ্চলীয় দ্বীপ হোক্কাইডোর দিকে এগিয়ে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। হাগিবিস ১৯৫৮ সালের পর থেকে টোকিওতে আঘাত হানা সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুন হতে পারে বলে সতর্ক করেছিল জাপান সরকার। এর প্রভাবে বহু জায়গায় আগের রেকর্ড ছাড়িয়ে যাওয়া বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানা গেছে। ফিলিপিন্সের তাগালোগ ভাষার শব্দ ‘হাগিবিস’ মানে ‘গতি’। এই হাগিবিস শনিবার সন্ধ্যায় হনশুর উপকূল দিয়ে স্থলে উঠে আসার কিছুক্ষণ পর টোকিওতে ৫ দশমিক ৭ মাত্রার একটি ভূমিকম্প হয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স।