১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রচ্ছদ সারা বাংলা ২১ কাউন্সিলর কে কারন দর্শানোর নোটিশ দিলো ডিএসসিসি ।
২৭, অক্টোবর, ২০১৯, ৭:০৪ অপরাহ্ণ -

চীফ রিপোর্টারঃ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সংরক্ষিত আসনের ২ জন ও ১৯ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ মোট ২১ জনকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়েছে।
রোববার (২৭ অক্টোবর) এ তথ্য জানিয়েছেন ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা উত্তম কুমার।

এর আগে ২৩ অক্টোবর ডিএসসিসি সচিব স্বাক্ষরিত পত্রে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে চিঠির জবাব দিতে বলা হয়েছে। তিন এর অধিক বোর্ড সভায় অনুপস্থিতির কারণে এসব কাউন্সিলরদের কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন ২০০৯ অনুযায়ী, কোনো মেয়র অথবা কাউন্সিলর পরপর তিনটি সভায় অনুপস্থিত থাকলে তাকে অপসারণ করার বিধান রয়েছে।

দক্ষিণ সিটির কর্মকর্তারা জানান, কাউন্সিলররা নির্বাচত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ২০টি সভা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জু ১৫টি সভাতেই অনুপস্থিত ছিলেন। ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. হাসান ছিলেন না ১৪টি সভায়।

১২টি সভায় অনুপস্থিত ছিলেন ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোলাম আশরাফ তালুকদার এবং ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোস্তবা জামান।
১১টি সভায় অনুপস্থিত ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তারিকুল ইসলাম সজীব এবং ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিল্লাল শাহ। ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. আশ্রাফুজ্জামান ১০টি সভায় অংশ নেননি। এছাড়া ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের মো. আরিফ হোসেন ৯টি সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।
*৩১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম রাসেল এবং ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জসীম উদ্দিন আহমেদ ৮টি করে সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।

৪ নম্বর ওয়ার্ডের গোলাম হোসেন, ৪০ নম্বর ওয়ার্ডের মকবুল হোসেন টিপু, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের সারোয়ার হাসান আলো ছয়টি সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবদুল বাসিত খান পাঁচটি সভায়, ৫২ নম্বর ওয়ার্ডের মোহাম্মদ নাছিম মিয়া পাঁচটি সভায়, ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. আউয়াল হোসেন ৪টি সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।

১৩ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর রাশিদা পারভীন মনি ১২টি এবং ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের মোসা. শিউলী হোসেন নয়টি সভায় অংশ নেননি।