২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রচ্ছদ জেলা/উপজেলা, বিশেষ সংবাদ, ময়মনসিংহ ত্রিশালের মোক্ষপুর কলেজ এমপিওভুক্তির দাবী।
৩০, অক্টোবর, ২০১৯, ১:১৬ অপরাহ্ণ -

ময়মনসিংহ অফিসঃ

ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলায় দুর্গম অঞ্চল মোক্ষপুরে ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় মোক্ষপুর কলেজ এবং এটি ২০০৫ সালে স্বীকৃতি লাভ করে।স্বীকৃতিপ্রাপ্ত নন-এমপিওভুক্ত কলেজের মধ্যে এই কলেজটিই একমাত্র নারী অধ্যক্ষ দ্বারা পরিচালিত এবং এতদ্বঞ্চলে শিক্ষা প্রসারে উপর্যুক্ত কলেজটি অসামান্য অবদান রেখেছে।কলেজটির অধ্যক্ষ স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ(স্বাশিপ)নেতা হওয়ায় এবং মুজিব অাদর্শের অনুসারী হওয়ায় বিগত জামায়াত বিএনপি জোট সরকারের সময় ড্যাবের কেন্দ্রীয় নেতা ও ত্রিশাল থেকে বিএনপির ময়নোনয়নে সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী ডা.মাহবুবুর রহমান লিটন ও তার গোন্ডাবাহিনী প্রকাশ্য দিবালোকে কলেজে ঢুকে বঙ্গবন্ধুর ছবি এবং প্রতিকৃতি ভাঙার চেষ্টা করে ও অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত করে।উল্লেখ্য শিক্ষানুরাগী ও বঙ্গবন্ধুর অাদর্শের উত্তরাধিকার মোক্ষপুর কলেজের অধ্যক্ষ নূরজাহান পারভীন নিজের অর্থ সম্পদ ব্যয় করে কলেজটি চালু রেখেছেন। তার বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া সন্তান ক্যান্সারে অাক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর তিনি কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে সন্তানের ছায়া খুজে বেড়ান এবং তাদেরকে সাধ্যমত শিক্ষা উপকরণ কেনা সহ মানবিক সাহায্য করেন।বঙ্গবন্ধু অন্তঃপ্রাণ অধ্যক্ষ নূরজাহান পারভীনের অপর সন্তান যিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলায় অধ্যয়নরত,তাকে দিয়ে তিনি স্ক্রু এর সাহায্যে কলেজ চত্বরে নিজ অর্থায়নে দৃষ্টিনন্দন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপন করেছেন।বিগত ২০১০ সালে অাওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে কলেজটি এমপিওভুক্তির সমস্ত শর্ত পূরণ করলেও এমপিওভুক্ত হয়নি,অদৃশ্য কালো হাতের ইশারায় তারেক জিয়ার সহচর দৈনিক দিনকালের কার্টুনিস্ট হামিদুল হক মানিক প্রতিষ্ঠিত ভালুকা ত্রিশাল মৈত্রী কলেজ এমপিওভুক্ত হয়।দুঃখজনক হলেও স্মরণকালের বৃহত্তম ২৭৩০ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হলেও এবারও এই কলেজটি এমপিওভুক্ত হয়নি।অত্র এলাকার সুধীসমাজ,শিক্ষানুরাগী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা এই শিক্ষাবর্ষেই বিশেষ বিবেচনায় ১৭ বছর পূর্বে প্রতিষ্ঠিত এবং চরম প্রতিকূলতার মাঝেও টিকে থাকা কলেজটি এমপিওভুক্তির দাবী জানিয়েছেন।মোক্ষপুর কলেজের অধ্যক্ষ নূরজাহান পারভীন “তথ্য প্রতিদিনকে” বলেন নারীর সামাজিক ক্ষমতায়ন তথা অবহেলিত দুর্গম অঞ্চলে উচ্চশিক্ষা তথা নারী শিক্ষা বিস্তারে কলেজটি ব্যাপক অবদান রেখেছে।তিনি অারও বলেন,মুজিব অাদর্শ সমুন্নত রাখতে এবং কলেজ শিক্ষকদের মানবেতর অবস্থা বিবেচনা করে এই শিক্ষাবর্ষেই কলেজটি বিশেষ বিবেচনায় এমপিওভুক্তির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর নিকট জোর দাবী জানাচ্ছি।