২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রচ্ছদ সারা বাংলা ৩ হাজার কোটি টাকার যন্ত্রপাতি কিনছে পুলিশ
১২, নভেম্বর, ২০১৯, ৬:২১ অপরাহ্ণ -

চীফ রিপোর্টারঃ

রাজধানীবাসীর নিরাপত্তায় নতুন উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে পুলিশ বিভাগ। আধুনিক যন্ত্রপাতি ও উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে অপরাধী চিহ্নিত করতে পুরো নগরীকে একটি নেটওয়ার্কে নিয়ে আসা হবে। কেনা হবে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকার যন্ত্রপাতি ও কাজ করবে আলাদা দক্ষ জনবল। এ লক্ষ্যে পরিকল্পনা কমিশনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে ‘ডেভেলপমেন্ট অব ঢাকা সিটি ডিজিটাল মনিটরিং সিস্টেম’ শীর্ষক একটি প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছে।

উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনায় (ডিপিপি) বলা হয়েছে, এ প্রকল্পের মাধ্যমে রাজধানীকে সিসিটিভি সিকিউরিটি সার্ভেইল্যান্স সিস্টেম ও ইন্টেলিজেন্ট ক্রাইম অ্যান্ড ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের মধ্যে আনা হবে। এছাড়া আধুনিক পন্থায় ভয়েস, ডেটা অ্যান্ড ভিডিও অল-ইন-ওয়ান ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন সিস্টেম এবং গানশট ডিটেকশন সিস্টেম অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দেশের সামাজিক ও অর্থনৈতিক অগ্রগতির লক্ষ্যে সামাজিক ও ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়ন করা জরুরি। এ লক্ষ্যে রাজধানীর সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে আধুনিক যন্ত্রপাতি, উন্নত৩ হাজার কোটি টাকার যন্ত্রপাতি কিনছে পুলিশ
৩ হাজার কোটি টাকার যন্ত্রপাতি কিনছে পুলিশ

প্রযুক্তি এবং দক্ষ জনবলের সমন্বয়ে একটি আধুনিক ইউনিফর্ম কমান্ড, কন্ট্রোল ও মনিটরিং প্ল্যাটফর্ম প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশন জানিয়েছে, এ প্রকল্পের মাধ্যমে ঢাকা শহরের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও সম্পদের নিরাপত্তায় নতুন মাত্রা যোগ হবে। প্রকল্পটির জন্য সরকারের নিজস্ব অর্থায়ন থেকে ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ৯৯২ কোটি টাকা। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদনের পর প্রকল্পটি চলতি বছর নভেম্বর থেকে জুন ২০২৪ সালে বাস্তবায়নের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করছে বাংলাদেশ পুলিশ।

প্রকল্পের কার্যপত্রে বলা হয়েছে, এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে ঢাকা শহরের অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও অপরাধীকে দ্রুত শনাক্ত করা যাবে। এছাড়া ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার জন্য একটি আধুনিক ডিজিটাল মনিটরিং সিস্টেম স্থাপন করা হবে। মূলত এ প্রকল্পে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) জনগণের জন্য সার্বক্ষণিক সেবা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করবে।

এ বিষয়ে পরিকল্পনা কমিশনের আর্থসামাজিক অবকাঠামো বিভাগের উপপ্রধান মোহা. বোরহানুল হক বলেন, ‘এ ধরনের প্রকল্প এসেছে। প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি (পিইসি) সভায় প্রস্তাবিত ডিপিপি অনুমোদন দেওয়ার পর যাচাই-বাছাইয়ের জন্য আমাদের কাছে আসবে। প্রস্তাবের ওপর শিগগিরই পিইসি সভা হবে।