২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রচ্ছদ অপরাধ, ময়মনসিংহ ময়মনসিংহে বিসমিল্লাহ হ্যাচারী এন্ড ফিসারীতে দুর্ধর্ষ মাছ চুরি
১৫, নভেম্বর, ২০১৯, ১২:০৫ পূর্বাহ্ণ -

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

ময়মনসিংহ সদর উপজেলা রাঘবপুর গাংপাড়া বিসমিল্লাহ হ্যাচারী এন্ড ফিসারীতে ব্রোট মাছ চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত (৯ নভেম্বর) শনিবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে বিসমিল্লাহ হ্যাচারী এন্ড ফিসারীর স্বত্বাধিকারী মোঃ শেখ সাদী স্বাধীন বাদী হয়ে চর ঘোড়ামারা গ্রামের মোঃ আবুল কাশেম এর ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বাবু ও অজ্ঞাত ৪/৫ জনসহ ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার দিবাগত রাত আনুমানিক দুইটা পুকুর পাড় থেকে বাড়ীতে চলে আসে মোঃ শেখ সাদী স্বাধীন। জাল দেখে স্থানীয়রা উক্ত চোরদের নাম প্রকাশ করে। এরপর রাত আনুমানিক তিন টার দিকে পুকুর পাড়ে গেলে ৪/৫জন লোক ৮০হাত জাল ও ৫টি মাছভর্তি ঝাইল রেখে পালিয়ে যায়। ৪টি জালের মাছ জীবীত থাকায় তা পুনরায় পুকুরে ছেড়ে দেওয়া হলেও অর্ধেক মাছ মরে ভেসে উঠে। ১টি ঝাইলের মৃত মাছগুলো শম্ভুগঞ্জ বাজারে ১৬ হাজার টাকায় বিক্রি করে। এর আগের বের জাল টান দিয়ে প্রায় ৭,৫০,০০০/= (সাত লক্ষ পঞ্চাশ হাজার) টাকার মাছ নিয়ে গেছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, চর ঘোড়া মারা গ্রামের মোঃ আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বাবু ও বিসমিল্লাহ হ্যাচারী এন্ড ফিসারীজ এর মালিক মোঃ শেখ সাদী স্বাধীন এর সাথে একটি পুকুর লীজ নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। তারই সূত্র ধরে এপর্যন্ত বিসমিল্লাহ হ্যাচারী ও ফিসারীতে পর পর তিন বার মাছ চুরি হয়েছে।

জানা গেছে, প্রথম বার চুরি হওয়ার সময় টের পেয়ে যাওয়ায় ১২০ হাত জালসহ ৪২টি ঝাইল, দ্বিতীয়বার ১০০হাত জালসহ ৩২ টি ঝাইল এবং শনিবার দিবাগত রাতে ৮০হাত জালসহ ৫টা মাছভর্তি ঝাইল ফেলে রেখে পালিয়ে যায় চোর চক্র।