২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রচ্ছদ রাজনীতি, সারা বাংলা বিগত ৪৪ বছরে একজন সৎ রাষ্ট্র নায়কের নাম শেখ হাসিনা – ওবায়দুল কাদের
১৬, নভেম্বর, ২০১৯, ১১:১৮ অপরাহ্ণ -

তথ্য প্রতিদিন ডেস্ক – শেখ হাসিনার উন্নয়ন বিশ্ব দরবারে প্রশংসিত হচ্ছে উল্লেখআওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিগত ৪৪ বছরে একজন সৎ রাজনীতির এবং সৎ রাষ্ট্র নায়কের নাম শেখ হাসিনা। একজন দক্ষ রাষ্ট্রনায়ক ও দক্ষ কূটনীতিকের নাম শেখ হাসিনা। এসময় তিনি দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ এবং টেন্ডার বাজদের না বলার জন্য নেতাকর্মীদের আহবান জানান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ দারিদ্র্য ও ভিক্ষুকমুক্ত দেশে পরিণত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের তৃতীয় জাতীয় সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজের ঘর থেকে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। দেশের উন্নয়নে এবং একটি সুন্দর দেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রীকে সহায়তা করতে হবে।

এর আগে বেলা ১১টায় সম্মেলন মঞ্চে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। পরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দলীয় সঙ্গীত অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী মমতাজ। পরে চার ধর্মগ্রন্থ পাঠ করা হয়। এর আগে সম্মেলন স্থলে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সঙ্গে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়।

সম্মেলনে অন্যানের মধ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, কাজী জাফর উল্লাহ, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামিম, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে রাজনীতির গন্ডি পেরিয়ে শেখ হাসিনা এখন রাষ্ট্র নায়ক উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সন্ত্রাস-দুর্নীতি, মাদক ও চাঁদাবাজি বিরোধী সুদ্ধি অভিযান সফল করতে হবে। শেখ হাসিনা নির্বাচনকেন্দ্রিক রাজনীতি করেন না। তিনি পরবর্তী প্রজন্মের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য কাজ করেন।